‘হিউম্যানিটি ইজ মাই ফ্যামিলি’ মানবতার টানে যার ছুটে চলা

মারুফ মুনির: প্রকৃতির আচরণ কখনো কখনো মানুষের অসহায়ত্বকে আরও প্রকট করে তোলে। প্রচণ্ড শীতের প্রকোপ থেকে আত্মরক্ষার জন্য অনেক হতদরিদ্র মানুষেরই ন্যূনতম শীতবস্ত্র নেই, নেই। উপযুক্ত আশ্রয় বা বাসস্থান।

এদের পশে মানবতার টানে ছুটে যায় ‘হিউম্যানিটি ইজ মাই ফ্যামিলি’ নামের স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন।

‘সকলের তরে সকলে আমরা, প্রত্যেকে আমরা পরের তরে’ প্রবাদটি যেন এই সংগঠনের পথচলার প্রেরণা।

এই প্রেরণাকে উপলক্ষ্য করে নিরলসভাবে বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছে সংগঠনটি। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছ, মূমুর্ষু রোগীদের বিনামূল্যে রক্তদান, পথশিশুদের শিক্ষা দেওয়া জন্য সেমিনারের আয়োজন করা ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ, দরিদ্র পরিবারের মধ্যে আর্থিক সহায়তা প্রদান, বস্ত্রহীনদের বস্ত্রদান, খাদ্যহীনদের খাদ্য দান।

এছাড়াও মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি করাসহ ধারাবাহিক কাজ করে যাচ্ছে এই সংগঠন ও সংগঠনের সদস্যরা।

কথা হয় সংঠনটির প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি ইমামুল হাসান রাবির সাথে। তিনি বলেন, যে কোনো দেশের সার্বিক উন্নয়নে তারুণ্যদের অবদান একান্ত প্রয়োজন।

তাই আমাদের শুধু আত্মসুখ সর্বস্ব জীবন কাম্য হতে পারে না। আমরা মানুষ। আর মানুষ হিসেবে স্বভাবতই অপরের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত রাখা আমাদের একান্ত কর্তব্য।

রাবির বলেন, পরার্থে আত্মোৎস্বর্গই মানবজীবনের স্বার্থকতা এবং মানুষের আত্মতৃপ্তির অন্যতম উপায় হলো মানবসেবা।

‘হিউম্যানিটি ইজ মাই ফ্যামিলি’র সকল সদস্যের পক্ষ থেকে সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের প্রতি অসহায় পরিবার, পথশিশু ও ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাড়ানোরও আহবান করেন তিনি।

রাবির জানান, তাদের প্রধান প্রধান কিছু কর্মসূচি রয়েছে। তন্মধ্যে, অসহায় ও পথশিশুদের পাশে দাড়ানো, বিনামুল্যে স্বেচ্ছায় রক্তদান, শীতার্তদের শীতবস্ত্র দান, পথশিশুদের শিক্ষা, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পিং, ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং, অন্যতম।

সাধ্যমতো অসহায় ও পথশিশুদের পাশে দাঁড়ানোই তাদের মূখ্য উদ্দেশ্য। তাদের লক্ষ্য অসহায়ত্ব দূরীকরণ, পথশিশুদের শিক্ষা, খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান বাস্তবায়ন করা।

‘হিউম্যানিটি ইজ মাই ফ্যামিলি’ একটি শিক্ষামূলক, স্বেচ্ছাসেবী, অরাজনৈতিক ও বেসরকারি সামাজিক সংগঠন। ২০১৬ সালের ২৬ মে আনুষ্ঠানিক পথচলা শুরু করে বেসরকারি সেচ্ছাসেবী এই সামাজিক সংগঠনটি। সেই থেকে নিরলসভাবে সামাজিক উন্নয়ন ও মানবসেবা মূলক কাজ করে আসছে সংগঠনটি।

এই সংগঠনের সদস্যরা রাস্তা পরিষ্কার থেকে শুরু করে মুমূর্ষু রোগিকে রক্তাদান, চিকিৎসা করাতে পারেন এমন মানুষের খোজ পেলে ছুটে গিয়ে সাধ্যমতো সাহায্য সহযোগিতা করা, ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন বস্তির বাচ্চাদের খাবারের ব্যাবস্থা করা, শীতের অসহায় ছিন্নমুলদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ, ঈদের সময় ছিন্নমূল পথশিশুদের নতুন পোশাক দিয়ে তাদের মুখে হাসি ফুটানোর চেষ্টসহ নানান কাজ করে ইতোমধ্যে মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছে।

সংগঠনটির ধারাবাহিক কার্যক্রমের কিছু খন্ডচিত্র:

কম্বল বিতরণ করছে এক ক্ষুদে সদস্য
অসহায় শিশুদের খাবার বিতরণ
বস্তিতে কম্বল বিতরণের প্রস্তুতি
ছিন্নমুল শিশুদের শিক্ষা উপকরণ বিতরণ
কম্বল বিতরণ করছেন এক নারী সদস্য
বস্তিতে কম্বল বিতরণ
পথ শিশুদের মাঝে খাবার বিতরণ
বিতরণের উদ্দেশ্যে প্রস্তুত কম্বল
অসহায় রোগির পাশে সংগঠনের দুই সদস্য
একফ্রেমে সংগঠনের সব সদস্য

/এসএস

Comments