ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে যা করবেন

ডেঙ্গু থেকে বাঁচার একমাত্র উপায় হলো ব্যক্তিগত সতর্কতা এবং অ্যাডিস মশা প্রতিরোধ। সঙ্গে কিছু ঘরোয়া টোটকা মেনে চলতে পারেন, তাতেও মশা-মাছি দূরে রাখা সম্ভব৷

পানি জমতে দেওয়া যাবে না: এ কথা সবাই জানেন যে, বাড়ি বা তার আশেপাশে জল বা আবর্জনা জমতে দেওয়া মানেই মশার বংশবৃদ্ধির সুযোগ করে দেওয়া৷ তাই কেবল বাড়ি পরিষ্কার রাখলেই চলবে না, সতর্ক দৃষ্টি রাখুন আশপাশের এলাকার প্রতিও৷

ঠিকমতো জঞ্জাল সাফ না হলে পুর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করুন৷ ওভারহেড ও আন্ডারগ্রাউন্ড ট্যাঙ্ক পরিষ্কার রাখুন, তা যেন ঢাকা দেওয়া থাকে৷ চৌবাচ্চা থাকলে তার উপরেও ঢাকা দিয়ে রাখুন৷ অ্যাকোয়ারিয়াম বা লিলি পুল আছে বাড়িতে? জল নিয়মিত পরিষ্কার করুন, ছেড়ে রাখুন গাপ্পির মতো মাছ যা মশার লার্ভা খেয়ে নেয়৷

নিম-সিট্রোনেলা তেল ব্যবহার করুন: সিট্রোনেলা তেল কিনতে পাওয়া যায় বাজারে৷ নিমের তেল ও এক্সট্রা ভার্জিন নারকেল তেল ১:১ অনুপাতে মিশিয়ে রাখুন হাতের কাছে৷ দরকারমতো স্প্রে করে নিন শরীরের খোলা অংশে৷ নারতেল আর নিম তেলের মিশ্রণ স্নানের পরেও ব্যবহার করতে পারেন গোটা শরীরে৷

সিট্রোনেলা তেল মেখেও স্বচ্ছন্দে বাইরে বেরোতে পারবেন, এর প্রাকৃতিক সুগন্ধ আপনাকে ঘিরে রাখবে সারা দিন৷ এই তেলে ভেজানো ব্যাজও কিনতে পাওয়া যায় আজকাল৷ বাচ্চাদের স্কুলে পাঠানোর সময় ইউনিফর্মে লাগিয়ে দিতে পারেন৷ এডিস মশা দিনের বেলা কামড়ায়, মর্নিং ওয়াকে যাওয়ার সময়ও সাবধানতা অবলম্বন করুন৷

তুলসী গাছ লাগান: অনেকেই বিশ্বাস করে যে বাড়িতে তুলসী গাছ থাকলে নাকি মশা বা মাছি ঘরে ঢুকতে পারে না৷ ব্যালকনিতে বা জানলার কাছে তুলসী গাছ রেখে দেখতে পারেন৷

মশা তাড়াতে রসুন: কয়েক কোয়া রসুন নিয়ে থেঁতো করে নিন৷ তার পর সেটা খুব ভালো করে ফুটিয়ে নিন তিন কাপ জলে৷ জল ফুটে অর্ধেক হলে নামিয়ে ছেঁকে বোতলে ভরে রাখুন৷ ঠান্ডা হলে ঘরের কোণে কোণে স্প্রে করে দিন এই মিশ্রণ৷

Comments